29-november-and-traffic-light

২৯ নভেম্বর ও ট্রাফিক লাইট

রাস্তায় যানবাহের চলাচল নিয়ন্ত্রণ করার জন্য ব্যবহৃত বৈদ্যুতিক সংকেত ব্যবস্থাকে ট্রাফিক লাইট বলে। এটি সাধারণত রাস্তার মোড়, চৌমাথা এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ব্যবহার করা হয়। ট্রাফিক লাইটের মাধ্যমে যানবাহের গতিবেগ কমিয়ে আনা হয়, যার ফলে দুর্ঘটনা কমে এবং যানজট নিরসন হয়।

ট্রাফিক লাইটে সাধারণত লাল, হলুদ এবং সবুজ এই তিনটি রঙের বাতি ব্যবহার করা হয়। লাল বাতি জ্বলার অর্থ যানবাহ চলাচল বন্ধ করতে হবে। হলুদ বাতির অর্থ যানবাহের গতিবেগ কমিয়ে আনতে হবে এবং সবুজ বাতি জ্বললে বুঝতে হবে যে যানবাহ চলাচল করা যাবে।

ট্রাফিক লাইটের বিভিন্ন ধরন রয়েছে, যেমন:

  • টাইমার-কন্ট্রোলড ট্রাফিক লাইট, 
  • সেন্সর-কন্ট্রোলড ট্রাফিক লাইট, 
  • অ্যাডাপ্টিভ ট্রাফিক লাইট। 

টাইমার-কন্ট্রোলড ট্রাফিক লাইটে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য প্রতিটি রঙের বাতি জ্বলানো হয়। সেন্সর-কন্ট্রোলড ট্রাফিক লাইটে রাস্তায় যানবাহের সংখ্যা অনুযায়ী প্রতিটি রঙের বাতি জ্বলানো হয়। অ্যাডাপ্টিভ ট্রাফিক লাইটে রাস্তার যানজটের অবস্থা অনুযায়ী প্রতিটি রঙের বাতি জ্বলানো হয়।

ট্রাফিক লাইট রাস্তার নিরাপত্তা এবং স্বচ্ছল চলাচলের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এটি যানবাহ দুর্ঘটনা কমাতে, যানজট নিরসনে এবং রাস্তার নিরাপত্তা বাড়াতে সাহায্য করে। ২৯ নভেম্বর, ১৯১০ সালে এর পেটেন্ট করা হয়।

Share this article
0
Share
Shareable URL
Prev Post

২৮ নভেম্বর ও রয়েল সোসাইটি অব লন্ডন

Next Post

৩০ নভেম্বর ও বুদ্ধদেব বসু

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Read next

৩১ বছর পর | নুসরাত জান্নাত

ঘোষ পরিবারের ছোট ছেলে বিমল ঘোষ এবার পুজো কাটাতে যাবে কক্সবাজারে। তার স্ত্রী চন্দনাকেও সাথে নিবে। যৌথ পরিবারে…
31-bochor-por
0
Share