victoryday-calibration-of-newspapers

সংবাদপত্রের বিজয় উদ্‌যাপন

১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তান বাহিনীর আত্মসমর্পণের পরে দেশে বিদেশে ছড়িয়ে পড়ে এই খবর। একেক জনের কাছে এই খবর পৌঁছেছে একেক শিরোনামে। সেই শিরোনামগুলোকে সংগ্রহে রাখার জন্য হিজিবিজির এই আর্কাইভ। আপনার জানা এমন শিরোনামগুলো সোর্স-সহ কমেন্ট করতে পারেন। হিজিবিজি আপনার কাছে শুনতে চায়, জানতে চায়।

“দখলদার পাক বাহিনীর আত্মসমর্পণ সোনার বাংলা মুক্ত”

ইত্তেফাক

Ittefaq
“দখলদার পাক বাহিনীর আত্মসমর্পণ সোনার বাংলা মুক্ত”
– ইত্তেফাক

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সমাপ্তি এবং একটি স্বাধীন জাতি হিসেবে বাংলাদেশের জন্ম উপলক্ষে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী বাংলাদেশ লিবারেশন আর্মির কাছে আত্মসমর্পণের পরদিন ১৭ ডিসেম্বর, ১৯৭১ তারিখে দৈনিক ইত্তেফাকে এটি প্রকাশিত হয়।

.

“পাকিস্তান নত বাংলাদেশ মুক্ত “

আনন্দবাজার পত্রিকা

anandabazar
“পাকিস্তান নত বাংলাদেশ মুক্ত “
– আনন্দবাজার পত্রিকা

এটি আনন্দবাজার পত্রিকা পত্রিকায় ১৭ ডিসেম্বর, ১৯৭১ তারিখে প্রকাশিত হয়েছিল। শিরোনামটি বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনের জন্য যে ত্যাগ স্বীকার করা হয়েছিল তার একটি স্মারক এবং এটি জনগণের জন্য গর্বের উৎস।

“জয় বাংলা, বাংলার জয়”

আজাদী

azadi
“জয় বাংলা, বাংলার জয়”
– আজাদী

এটি দৈনিক আজাদ পত্রিকায় ১৭ ডিসেম্বর, ১৯৭১ তারিখে প্রকাশিত হয়েছিল। শিরোনামটি বাংলাদেশের জাতীয়তাবাদী স্লোগান যা যুদ্ধের সময় ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়েছিল। এটি ঐক্য ও স্বাধীনতার আহ্বান, এবং পাকিস্তানি শাসনের বিরুদ্ধে বাংলাদেশি জনগণের প্রতিরোধের প্রতীক।

“সোনার বাংলা আজ মুক্ত, স্বাধীন: জয় সংগ্রামী জনতার জয় – জয় বাংলার জয়”

দৈনিক বাংলাদেশ (পরবর্তীতে দৈনিক বাংলা)

dainik-Pakistan
“সোনার বাংলা আজ মুক্ত, স্বাধীন: জয় সংগ্রামী জনতার জয় – জয় বাংলার জয়”
– দৈনিক বাংলাদেশ

শিরোনামটি বাংলাদেশি জনগণের বিজয়ের ঘোষণা। যারা নয় মাস ধরে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে স্বাধীনতার জন্য লড়াই করেছিল, তাদের প্রতি অভিনন্দন জ্ঞাপন করে শিরোনামটি দেয়া হয়। যুদ্ধের পর দেশ পুনর্গঠন শুরু হওয়ায় এটি ঐক্য ও শান্তির আহ্বানও বটে।

“বাংলাদেশ স্বীকৃতি পেল”

যুগান্তর

Jugantor
“বাংলাদেশ স্বীকৃতি পেল”
– যুগান্তর

শিরোনামটি ১৯৭১ সালের ১৮ ডিসেম্বর যুগান্তর পত্রিকায় বিশেষভাবে প্রকাশিত হয়, জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে বাংলাদেশকে একটি স্বাধীন জাতি হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার এক দিন পর। শিরোনামটি বাংলাদেশের জনগণের জন্য বিজয়ের একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা, কারণ জাতিসংঘ কর্তৃক বাংলাদেশের স্বীকৃতি ছিল একটি বড় কূটনৈতিক অর্জন, এবং এটি অন্যান্য দেশের জন্যও বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেওয়ার পথ প্রশস্ত করেছিল।

“The War Is Over”

The Statesman

the-statesman
“The War Is Over”
– The Statesman

এটি স্টেটসম্যান পত্রিকায় ১৬ ডিসেম্বর, ১৯৭১ তারিখে প্রকাশিত হয়েছিল, যেদিন ভারত ও পাকিস্তান বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের অবসান ঘটিয়ে যুদ্ধবিরতি চুক্তি স্বাক্ষর করেছিল। শিরোনামটি নয় মাস ধরে পাকিস্তানি দখলদারিত্বে ভোগা বাংলাদেশি জনগণের জন্য একটি বড় স্বস্তির কারণ ছিল। একটি স্বাধীন জাতি হিসাবে বাংলাদেশের জন্মের সাথে যুদ্ধেরও সমাপ্তি ঘটে।

“Bangla Desh Freed”

The Tribune

tribune
“Bangla Desh Freed”
– The Tribune

শিরোনামটি পৃষ্ঠার শীর্ষে স্পষ্টভাবে প্রদর্শিত হয় এবং শিরোনামটি আমাদের বিজয়ের একটি শক্তিশালী প্রতীক। এটি একটি অনুস্মারক যে প্রচণ্ড নিপীড়নের মুখেও বাংলার মানুষ জয়লাভ করতে পারে।

“The Bloody Birth of Bangladesh”

TIME

times
“The Bloody Birth of Bangladesh”
– TIME

বাংলাদেশের স্বাধীনতার রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের সমাপ্তি এবং বহু প্রাণের বিনিময়ে অর্জিত এ বিজয়ের পরপরই টাইম ম্যাগাজিনে এই শিরোনামটি প্রকাশিত হয়। ম্যাগাজিনটি যুদ্ধের সময় সংঘটিত সহিংসতা এবং রক্তপাতকে সামনে তুলে ধরে এই বিজয়ের তাতপর্য বাড়িয়ে দেয়।

লেখা পাঠান: বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন

Share this article
0
Share
Shareable URL
Prev Post

বুক রিভিউ: রেজাউল ইসলাম আজিম-এর বই মেরিন ড্রাইভ | সাইফা শান্তা

Next Post

তারেক খান মজলিশ তারা’র কবিতা: বিজয়ের কবিতা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Read next
0
Share